বিশ্বের ২য় জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন এর জানা-অজানা ইতিহাস

1834

বিশ্বের ২য় জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন এর জানা-অজানা ইতিহাস গুগলের পরেই ইউটিউব হলো বিশ্বের ২য় বৃহত্তম সার্চ ইন্জিন । এমনকি বিং, ইয়াহু এবং আস্ক এর সমন্বিত  রুপের চেয়েও এটি অনেক বড় । প্রতিমাসে তিন বিলিয়ন সার্চ করা হয় ইউটিউবে । ইউটিউব যদি একটা দেশ হতো তবে চায়না এবং ভারতের পরে এটি হতো বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ ।

যেভাবে ইউটিউবের জন্ম হলো: ২০০৫ সালের ফেব্রুয়ারীতে  প্রতিষ্ঠিত হওয়া এই প্রতিষ্ঠানটির পেছনে ছিলেন মূলত পেপ্যাল এর  তিন প্রাক্তন চাকুরীজীবি । যারা হলেন চ্যড হারলি, স্টিভ চ্যন আর বাংলাদেশী বংশোদ্ভত জাভেদ করিম। Youtube.com  ডোমেইনটি ২০০৫ বিশ্বভালোবাসা দিবসে নিবন্ধন করা হয়েছিলো ।

ইউটিউবের সহপ্রতিষ্ঠাতা জাভেদ করিম এর জন্ম ২৮শে অক্টোবর ১৯৭৯ পূর্ব জার্মানীর মার্সেবার্গ (Merseburg) । জাভেদ করিম এর পিতামাতা ছিলেন বিজ্ঞানী । তার পিতা নাইমুল করিম ছিলেন একজন রসায়নবিদ (কেমিষ্ট) । তার মা ক্রিষ্টিন করিম ছিলেন  University of Minnesota একজন প্রাণ রসায়ন ( biochemistry ) এর অধ্যাপক ।  

ইউটিউবের প্রথম ভিডিও: ২০০৫ সালের ২৩শে এপ্রিল সহ-প্রতিষ্ঠাতা জাভেদ করিম আপলোড করেন প্রথম ভিডিও । যার শিরোনাম ছিলো “Me At The Zoo”. ১৯ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি ধারণ করা করেছিল তার হাই- স্কুল বন্ধু Yakov Lapitsky এবং স্থানটি ছিলো সান দিয়াগো চিড়িয়াখানা ।


সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও (নন মিউজিকেল): নন মিউজিকেল বিভাগে সবচেয়ে বেশি প্রদর্শিত ভিডিওটি হলো “Charlie Bit My Finger” যা প্রায়  এ পর্যন্ত ৮৪০ মিলিয়ন বার এর মত প্রদর্শিত হয়েছে ।

সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও (মিউজিকেল): মিউজিক্যাল বিভাগে সবচেয়ে প্রদর্শিত ভিডিওটি হলো জুলাই ১৫, ২০১২ সালে আপলোড হওয়া ভিডিও গ্যাংনাম স্টাইল । দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে  অবস্থিত গ্যাংনাম নাম বলে একটা এলাকার জনগোষ্ঠীদের বিলাসবহুল জীবনযাপনকারীদের ব্যঙ্গ করেই এ গান গাওয়া হয়েছে। গানটির কথা যতটা না মজার, তার চেয়ে বেশি অদ্ভত দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গীতশিল্পী সাইয়ের ঘোড়া-নাচ। 

YouTube visitor stateদর্শক:  ইউটিউব মোট ভিজিটরদের মধ্যে ৮০ শতাংশই যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের । বিশেষ করে সৌদি আরব এবং আরব আমিরাত হলো এই তালিকার শীর্ষে ( highest per capita YouTube viewership in the world.) প্রায় ৮৮টি দেশের স্থানীয় সংস্করণ সহ ৭৬ টির বেশি ভাষায় আপনি ইউটিউব ব্যবহার করতে পারবেন ।


সবচেয়ে বেশি ডিসলাইক হওয়া ভিডিও: সেটি হলো জাস্টিন বিবারের “Baby“. যদিও এ তালিকায় জাষ্টিন বিবার সবার শীর্ষে  তবে শীর্ষ দশ এর মধ্যে রয়েছে আমেরিকান ইউটিউবার  রেবেকা ব্ল্যাক  এর Friday, মাইলি সাইরাস এর Wrecking Ball , এবং নিকি মিনাজ এর এ্যানাকোন্ডা  । এই তালিকায় আপনার পছন্দের ভিডিওটি আছে কি না তা চেক করতে চাইলে দেখতে পারেন → Most Disliked YouTube Videos.

ফোর্বস ম্যাগাজিন তার এক প্রতিবেদনে এমন ১০ শীর্ষ তারকাকে তুলে ধরে যেখানে লক্ষ্য করা যায় তাদের সমন্বিত আয়ের পরিমাণ প্রায় ৫৪.৫ মিলিয়ন ডলার । শীর্ষ দশের প্রথম স্থানে থাকা তারকা হলো  PewDiePie”  যার আসল নাম হলো Felix Arvid Ulf Kjelberg এবং আয়ের পরিমাণ প্রায় ১২ মিলিয়ন ইউএসডি. এর মধ্যে রয়েছে তিন জন নারী – লিন্ডসে স্টালিং, মিশেল ফান এবং ইন্দো-কানাডিয়ান ইউটিউব তারকা, ভিডিও ব্লগার (vlogger)  এবং কমেডিয়ান  লিলি সিং

বিশ্বের ২য় জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন  আরো কিছু অজানা

  1. ইউটিউব তৈরির ১৮ মাসের মাথায় গুগল এটি কিনে নেয় ১.৬৫ বিলিয়ন ডলার ।
  2. ইউটিউবের বাৎসরিক ব্যয়  $6,350,000,000
  3. ইউটিউব থেকে ২০১৪ গুগলের বাৎসরিক আয় হয় $৪,000,000,000 
  4. প্রতি মিনিটে প্রায় ৪০০ ঘন্টার ভিডিও আপলোড হচ্ছে ইউটিউবে ।
  5. গড়ে প্রতি মিনিটে টুইটারে এমন  ৪০০ টুইট হয় যাতে ইউটউব লিংক সংযুক্ত থাকে থাকে ।
  6. ২০০৯ সালের নভেম্বর মাসে ইউটিউব উন্মোচন করে  “Full HD
  7. ইউটিউবের রয়েছে ৮০০ মিলিয়ন এর বেশি  ইউনিক ভিজিটর যা সমগ্র ইউরোপের চেয়ে বেশি ।
  8. বলা হয়ে থাকে , ইউটিউবের যত ভিডিও আছে  তা দেখে শেষ করতে ১৭০০+ বছর লাগতে পারে ।
  9. ইউটিউব দর্শকদের প্রায় অর্ধেক স্মার্ট ফোন কিংবা ট্যাবলেট ব্যবহারকারী

 


আরো পড়তে পারেন-

এই নিবন্ধের কোন প্রকার অসংগতি পরিলক্ষিত হলে  কিংবা কোন পরামর্শ, মতামত থাকলে মন্তব্য করতে পারেন ।