বাংলাদেশের ই-কমার্স ও অনলাইন গ্রাহকদের সুবিধার্থে এই দিক নির্দেশনা মূলক ব্লগটি উৎস্বর্গ করা হলো । অনলাইনে কেনাকাটা করে প্রতারিত হওয়ার বিষয়টি আজ সাধারণ হয়ে দাড়িঁয়েছে । তা সত্বেও অনলাইন শপিং সাইটগুলো আমাদের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে দাড়িয়েছে বিশেষ করে আধুনিক প্রযুক্তি প্রেমী তরুন সমাজের কাছে । আমি চেষ্টা করেছি ১০টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করতে যে বিষয়গুলি আপনার অনলাইন শপিং অভিজ্ঞতাকে ইতিবাচক করে তুলতে পারে ।

গ্রাহক পর্যালোচনা ( Customer Reviews)

Customer Reviews bongovandar যদি আপনি সিদ্ধান্ত নেন যে অনলাইন স্টোর থেকে শপিং করবেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে কিছু বিষয়ে নিশ্চিত হতে হবে যেমন স্টোরটি কতটুকু নির্ভরযোগ্য ‍ ও বিশ্বাসযোগ্য এবং এই বিষয়ে গ্রাহক/ভোক্তাদের মতামত কি । তারা কিরুপ উদ্বেগ প্রকাশ করছে এবং তাদের ইতবাচক ও নেতিবাচক অভিজ্ঞতাগুলো কিরুপ । গ্রাহক সেবা (Customer Service) কেমন তা অবশ্যই জানার চেষ্টা করবেন । এই বিষয়গুলো যেনে আপনি পরবর্তী ধাপে অগ্রসর হলে আপনার অনলাইন কেনাকাটার অভিজ্ঞতা স্বাচ্ছন্দ্যময় হবে বলে আমি মনে করি ।


 সোশ্যাল মিডিয়ায় অপরিচিতদের এড়িয়ে চলুনanonymous bd

বিশেষ করে ফেসবুক এবং টুইটারের মত সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর মাধ্যমে এই ধরনের ঘটনা বেশি ঘটে থাকে । পরিচিত কিংবা অপরিচিত এমন অসংখ্য বন্ধু বা ফলোয়ারদের কাছে থেকে   আপনার ইনবক্সে অসংখ্য লিংক আসে বিভিন্ন পন্য সংক্রান্ত – এগুলোকে এড়িয়ে চলাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে । কেননা এসকল লিঙ্ক এর মাধ্যমে আপনার নিরাপত্তা হুমকির সম্মূখীন হতে পারে । এমনকি এই ধরনের লোভনীয় অফারগুলো আপনার ইমেইলেও আসে সচরাচর । এসকল লিংকে ক্লিক করার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরী ।


তুলনামূলক মূল্য

price bd আপনি যে দামে পন্যটি কিনছেন তার মূল্য কি যৌক্তিক বা নির্ভরযোগ্য ।  পন্যটির ক্রয় নিশ্চিত করার পূর্বে অন্যান্য অনলাইন স্টোগুলোতে এই পণ্যের মূল্য দেখে নিতে পারেন । এবং মূল্যের সাথে  যে সকল পরিসেবা রয়েছে তাও নিশ্চিত করবেন । কিছু কিছু পন্যের ক্ষেত্রে লক্ষ্য করা গেছে যে ঐ পণ্যের দর স্থানীয় বাজার মূল্যের চেয়ে অযেীক্তিকভাবে বেশি । সুতরাং অনলাইনে পণ্য কিনে লাভবান হতে গেলে বিষয়টির প্রতি গুরুত্ব দেয়া উচিৎ ।


 মূল্যছাড় / উপহার

special offer বিভিন্ন উৎসবকে কেন্দ্র করে অনলাইন স্টোরগুলো গ্রাহকদের কুপনের মাধ্যমে  মূল্যছাড় দিয়ে থাকে । সাধারণত এসকল কুপনের মাধ্যমে আপনি ৪-৫ শতাংশ সাশ্রয় করতে পারবেন ।  সুতরাং অনলাইনে পণ্য ক্রয় নিশ্চিত করার পূর্বে বিষয়টির প্রতি গুরুত্ব দেয়া উচিৎ ।


ফেরৎ / প্রত্যর্পণ, ওয়ারেন্টি, গ্যারান্টি

refund policy অনলাইন স্টোর থেকে কোন কিছু ক্রয় করার পূর্বে নিশ্চিত হয়ে নিন পণ্যটি আপনার অর্ডারের সঙ্গে সামন্জস্য কি না হলে কিংবা কোন রুপ ত্রুটি দেখা দিলে পণ্যটি ফেরত যোগ্য কিনা এবং যে সকল পণ্য দ্রব্যের ক্ষেত্রে ওয়ারেন্টি, গ্যারান্টি প্রযোজ্য তা আপনি পাচ্ছেন কিনা এবং তা কিভাবে পাবেন । ক্রয়কৃত পণ্য কোন কারণে ফেরৎ দেয়ার প্রয়োজন হলে  রিফান্ড/ প্রত্যর্পণ কিভাবে কতদিনের মধ্যে পাবেন ।


পাসওয়ার্ড সংক্রান্ত

How-to-make-a-strong-password নিরাপদ অনলাইন শপিং এর অন্যতম শর্ত হলো একটি আদর্শ পাসওয়ার্ড । যদি আপনার অনলাইন জগৎকে সুরক্ষিত রাখতে চান তবে একই পাসওয়ার্ড সব ক্ষেত্রে ব্যবহার করা উচিৎ নয় । আর যদি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন তবে আপনাকে একটু বেশিই সতর্ক  থাকা দরকার ।  পাসওয়ার্ড গুলো অন্তত ৩-৬ মাস অন্তর পরিবর্তন করা উচিত  । প্রয়োজনে ভিন্ন ভিন্ন ইমেইল ব্যবহার করা উচিত ।  নিরাপদ ও শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরি করতে strong passwords generator ব্যবহার করতে পারেন ।


গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা নীতি দেখুন

https websolution যদি আপনি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন তবে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট সাইটের Privacy policy and Security Policy দেখতে ভুলবেন না । HTTPS/SSL (i.e – https://www.exampleshop.com/)  ব্যবহার করেনি এমন সাইটে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন । ই-মেইলে কার্ড-সংক্রান্ত তথ্যের অনুরোধ জানিয়ে কোনো মেইল পেলে তা এড়িয়ে চলুন।


লুকানো শিপিং, শুল্ক ও অন্যান্য খরচ থেকে সাবধান

shocked man

কোন পণ্য অর্ডার করার সময় অবশ্যই ভালো মতো চেক করবেন বা জেনে নিবেন কোন প্রকার Hidden Charge  সংযুক্ত হবে কি না । প্রয়োজনে Instant Chat  সুবিধা ব্যবহার করতে পারেন । তাছাড়া বিল পরিশোধ করার পরে কিংবা বিল হাতে আসার পরে দেখবেন মাথার চুল ছিড়ঁতে ইচ্ছে করতে পারে কিংবা চোয়াল ঝুলে যেতে পারে বিল দেখে ।


রসিদ এবং অন্যান্য তথ্যাবলী রাখুন ক্রয় পরবর্তী পণ্যের রশিদ ও অন্যান্য তথ্যবলী নিরাপদ স্থানে সংরক্ষণ করুণ । যেমন ক্রয় রশিদ, ওয়ারেন্টি গ্যারান্টি ডকুমেন্টস এমনকি প্রয়োজন মনে করলে চ্যাট কিংবা ভয়েস রেকর্ডিং সংরক্ষণ করতে পারেন ।


 ১০পাবলিক প্লেসের মত জায়গাগুলোতে যে ওয়াই-ফাই সুবিধা দিয়ে থাকে তা ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে বিশেষ করে অনলাইনে কেনাকাটার সময় তো ব্যবহার করা উচিৎ নয়ই । এই ধরনের পাবলিক নেটওয়ার্ক গুলোতে তথ্য আদান প্রদান সহজ ও সুবিধাজনক হলেও নিরাপদ নয় । এমনকি আপনার প্রতিবেশির ফ্রি ওয়াই-ফাই ব্যবহার করার পূর্বেও একবার ভেবে নিবেন ।


NO COMMENTS

LEAVE A REPLY